২০১৬ পর্যটন বর্ষ, বিভিন্ন সেবায় ১০- ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়

ট্যুরিজম বর্ষ ২০১৬, বাংলাদেশ

আসন্ন ২০১৬ সালটি ‘ট্যুরিজম বর্ষ’ হিসেবে পালিত হবে। ধারণা করা হচ্ছে- এ বছরে বিপুলসংখ্যক বিদেশী পর্যটক বাংলাদেশে আসবে। বিদেশী পর্যটকদের উন্নত সেবা প্রদানের জন্য ট্যুর অপারেটরদের দক্ষতা বাড়াতে সরকার তরুণ ট্যুর অপারেটরদের প্রশিক্ষণ প্রদান করছে।

 

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের (বিটিবি) মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আখতারুজ্জামান খান কবির বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা ট্যুরিজম বছরে ১০ লাখ বিদেশী পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করছি। আমাদের প্রস্তুতির অংশ হিসেব আমরা ট্যুর অপারেটরদের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে প্রশিক্ষণ দেয়ার ব্যবস্থা করেছি। তিনি বলেন, আমাদের পর্যটক শিল্পের ব্যাপক সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও যথাযথ মার্কেটিং কৌশলের অভাবে আমরা আমাদের পর্যটন সুবিধা কাজে লাগাতে পারছি না।

কবির বলেন, আন্তর্জাতিক ট্যুরিজমের উন্নয়নের পাশাপাশি আমরা বিদেশী পর্যটকদের উন্নত সেবা প্রদানে আমাদের সক্ষমতা নিশ্চিত করছি। গত সপ্তাহে বিটিবি ট্যুরিজম বর্ষকে সামনে রেখে একদল তরুণ ট্যুর অপারেটরদের প্রশিক্ষণ দিয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের এই প্রয়াস অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, ট্যুরিজম বর্ষের অনুষ্ঠানকে আকর্ষণীয় করে তুলতে আমরা ট্যুরিজম শিল্পের সব ধরনের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করতে পদক্ষেপ নিয়েছি।

এদিকে, বিটিবির একটি সূত্র জানায়, ট্যুরিজম বর্ষ সফল করতে ‘ভিজিট বাংলাদেশ ক্যাম্পেইন’ শিরোনামে একটি নীতিমালা গাইডলাইন প্রস্তুত করা হয়েছ। প্রচারণা ৪ ভাবে বিভক্ত করা হয়েছে। এগুলো হলো- প্রস্তুতি, প্রি-ইয়ার প্রমোশন, সিলেকশন ও ইভাল্যুয়েশন। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে বিটিবি ইতোমধ্যেই ট্যুরিজম বর্ষের একটি খসড়া ইভেন্ট ক্যালেন্ডার তৈরি করেছে।

Tourism-spot-in-Bangladesh

২০১৬ সালের পর্যটন বর্ষ উপলক্ষে বিশেষ ভ্রমণ প্যাকেজ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড (বিটিবি) এবং পর্যটন করপোরেশন। এই প্যাকেজের আওতায় বাংলাদেশ ভ্রমণে আসা পর্যটকরা সরকারি-বেসরকারি হোটেল-মোটেল, বিমান ভাড়া, খাদ্যসহ বিভিন্ন সেবায় ১০ থেকে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় পাবেন। গতকাল প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান অপরূপ চৌধুরী এবং বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী আখতারুজ জামান খান কবীরসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের অন্য কর্মকর্তারা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাংলাদেশ পর্যটনশিল্পের উন্নয়ন ও বিকাশে একটি অন্যতম কার্যকর বিপণন উদ্যোগ হচ্ছে ভিজিট বাংলাদেশ ইয়ার অর্থাৎ বাংলাদেশ পর্যটন বর্ষ ২০১৬ উদ্‌যাপন। দেশি-বিদেশি পর্যটকদের কাছে বাংলাদেশকে সুপরিচিত গ্রহণযোগ্য, নিরাপদ ও আকর্ষণীয় পর্যটন গন্তব্য হিসেবে তুলে ধরার ক্ষেত্রে এ উদ্যোগটি অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারে। সংবাদ সম্মেলনে অপরুপ চৌধুরী বলেন, পর্যটন বর্ষ-২০১৬ চলাকালীন দলবদ্ধ ভ্রমণের আওতায় দেশি-বিদেশি এয়ারলাইনসে আসা বিদেশি পর্যটক পর্যটন করপোরেশনের আবাসিক স্থাপনা ব্যবহার করলে তাঁরা সেসব হোটেল-মোটেলে সৌজন্যমূলক নাশতাসহ ৩০শতাংশ মূল্য ছাবিশেষ ছাড়ে পর্যটন বর্ষের ভ্রমণ প্যাকেজ ঘোষণাড় এবং মধ্যাহ্ন ও নৈশভোজে ২০ শতাংশ ছাড় পাবেন। তিনি বলেন, পর্যটন করপোরেশনের স্থাপনায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস তাঁদের অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক কার্যালয়ের মাধ্যমে পর্যটন করপোরেশন ও অন্যান্য আবাসিক ও আপ্যায়ন সুবিধা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের প্রদত্ত সুবিধা বিপণন করবে। দেশে-বিদেশে যেসব বিমান অফিস রয়েছে সেখানকার কাউন্টার থেকে সরাসরি বিমান টিকিট ক্রয় করলে সেসব টিকিটের ওপর ১০ শতাংশ ছাড় পাবেন। এ ছাড়া বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন নভোএয়ারসহ অন্যান্য এয়ারলাইনসের প্রিভিলিজড কার্ড ও লয়্যালিটি কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে বিজনেস ক্লাসে ভ্রমণকারী বিদেশি পর্যটকরা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবস্থিত বলাকা ভিআইপি লাউঞ্জে ৩০ শতাংশ ছাড়ে খাবার গ্রহণ করতে পারবেন।

এদিকে সোনারগাঁও হোটেল প্রাপ্তি সাপেক্ষে তাঁদের ডিলাক্স কক্ষে ভ্যাট ও সার্ভিস চার্জ ছাড়া ৫০ শতাংশ ছাড় দেবে। এ ছাড়া কক্ষ সুবিধাভোগীরা ক্যাফে বাজার রেস্তোরাঁয়, প্রাতরাশ, হেলথক্লাব, সুইমিংপুল ব্যবহার, বিমানবন্দর থেকে হোটেলে বাস সার্ভিস, আবাসিক কক্ষে ওয়াইফাই ও ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সুবিধা, স্থানীয় সংবাদপত্র, দুই বোতল সুপেয় পানি পাবেন। এ ছাড়া পর্যটন করপোরেশনের প্যাকেজ ট্যুরের যাত্রীদের টিকিটের ওপর ১৫ শতাংশ ছাড় দেবে নভোএয়ার।

 

কম দামে বিমানের টিকিটঃ

Call Us @ 01711-989211

Brown Air BD (tours and travels)
email : info@BrownAirBd.com
Web site: BrownAirBd.com

UK Office:
Unit FM-2, Whitechapel Center
London, E1 1HL

Bangladesh Office:
AK Center, 3rd Floor
(Beside Sanmar Ocean City)
CDA Avenue, East Nasirabad
Chittagong.

Credit: kalerkantho & নিউজ ডায়েরী ডেস্ক